মঙ্গলবার, ২৫ জুন, ২০১৩

সরল রেখার সরলতা

সরল রেখার মধ্যেই রয়েছে সরলতা, বক্র রেখার মধ্যে বক্রতা। তাই সরল রেখার মধ্যে বক্রতার আশা অবান্তর । বক্র রেখাতেও সরলতার আশা অর্থহীন দূরাশা।যে কোন কথায় বা আলোচনার কারণ বা ভিত্তি মূল রয়েছে। কারণ বা ভিত্তি মূল ছাড়া কোন কথা বা আলোচন পাগলের প্রলাপ ছাড়া আর কিছুই নয়। যেমন ভিত্তি মূল স্থাপন না করলে কোন দালান ইমারত বা প্রতিষ্ঠান বা ঘর প্রতিষ্ঠা বা দাঁড় করানো যায় না। স্বয়ং নিজের  ওপর রেখাপাত পাতিনা কেন? আমার পা-পাতা বা পাতা পা, না হলে সোজা দন্ডায়মান অর্থাৎ সোজা হয়ে দাঁড়াতে পারিকি? না মোটেই না। কেউ যদি  বলে, পা-দুটো না থাকলে কি হবে?  আমি দুপায়ী চৌ-পায়ীদের ন্যায় পাল্লা দিয়ে দাড়াতে ও দৌড়াতে পারি, পা পাতা শুন্য  ব্যক্তটির উক্ত উক্তিটি অবিশ্বাস্য নয়  কি? যদিও সে  দাঁড়ালো বা দৌড়ালো, বুঝতে হবে অন্যের সাহয্য নিয়েছে তা  ব্যক্তিই হোক আর লৌহ বা কাষ্ঠ খন্ডই  হোক।  ভিত্তির মধ্যে রয়েছে শক্তি এবং ভিত্তিহীন সদা নড়বড়ে যা সাধারণ হওয়ায় ভেঙ্গে পড়তে পারে। যেমন আমি বা যে কোন দু পা বা চার-প, একটি বা তিনটি পায়ের উপর ঠিক শক্তভাবে দাঁড়তে পারবে কি? বলা হবে পারবেনা। দাঁড়ালেও নড়বড়ে শক্তহীন হবে,  যা সহজেই পড়ে যাবে।  মজবুত, শক্ত, শক্তহীন, নরম,  নড়-বড়ে এর ব্যবধান এবং কোনটির  মূল্যায়ন কত? তা স্রষ্টা দেখিয়ে দিয়েছেন । দু-পা,চার-পা, দু-পাখা, এবং শক্ত ভিত্তিক ভিত্তি প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে ।